প্রথম পাতা খবর ‘ভুয়ো’ গ্রাহক বাদ দিয়ে নিটোল পরিষেবার লক্ষ্যে ই-রেশন কার্ড চালুর পথে রাজ‍্য

‘ভুয়ো’ গ্রাহক বাদ দিয়ে নিটোল পরিষেবার লক্ষ্যে ই-রেশন কার্ড চালুর পথে রাজ‍্য

286 views
A+A-
Reset

কলকাতা : নতুন বছরেই ই-রেশন কার্ড পরিষেবা শুরুর সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য সরকার। পাশাপাশি চলবে ডিজিটাল রেশন কার্ডের পরিষেবাও।

মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশ অনুসারে রাজ্যের প্রায় ১০ কোটি মানুষের কাছেই ডিজিটাল রেশন কার্ড পৌঁছনোর কথা। কিন্তু ভোট দোরগোড়ায় এসে গেলেও ডাক-সমস্যায় বিপুল সংখ্যক মানুষের হাতে এখনও তা পৌঁছয়নি। আবার সব ডিজিটাল রেশন কার্ড ‘সঠিক’ হাতে রয়েছে কি না, তা নিয়েও এখন নিশ্চিত হতে চাইছে প্রশাসন।

তাই ই-রেশন কার্ড পরিষেবা চালু হলে সবক’টি সমস্যার থেকেই রেহাই পাওয়া যাবে।

অনেকটা ই-আধারের ধাঁচে, খাদ্য দফতরের নির্দিষ্ট ওয়েবসাইটে গিয়ে নিজের মোবাইল নম্বর দিয়ে ই-রেশন কার্ড পেতে পারবেন যে কেউ। শুধুমাত্র চালু রেশন কার্ডের সঙ্গে উপভোক্তার আধার এবং মোবাইল নম্বর সংযুক্ত থাকতে হবে।

কার্ডের পাশাপাশি পরিষেবা প্রদানের জন‍্য রেশন দোকানে খাদ্যশস্য বরাদ্দ করার পদ্ধতিতেও বদল আনছে রাজ‍্য।

আগে রেশন কার্ড নিয়ে দোকানে না-যাওয়া পর্যন্ত উপভোক্তার মাথাপিছু খাদ্যশস্য বরাদ্দ হত না। এখন ই-রেশন পরিষেবার আওতায় কোনও উপভোক্তা এলেই খাদ্য দফতরের মূল সার্ভার থেকে সংশ্লিষ্ট উপভোক্তার এলাকার রেশন দোকানে বার্তা এবং বরাদ্দ রেশন একসঙ্গেই পৌঁছে যাবে। ই-রেশন কার্ড রেশন দোকানে দেখালেই নির্ধারিত খাদ্যসামগ্রি পাওয়া যাবে।

ই-রেশনে আধার নম্বর যুক্ত থাকায়, তার নকল করা সম্ভব হবে না বলে মনে করছেন অধিকর্তারা। কিউ-আর কোড থাকায় কার্ডের সুরক্ষাও বাড়বে। পাশাপাশি অন্যান্য কার্ডের মতোই ই-রেশনকে বৈধতা দেওয়ার পথে হাঁটবে সরকার। ফলে নথি হিসাবেও ই-রেশনকে ব্যবহার করতে বাধা থাকবে না।

লকডাউনে কাজকর্ম প্রায় বন্ধ থাকার পর আনলক পর্বে আধার সংযুক্তিকরণের প্রক্রিয়া ফের শুরু হয়েছে। কিন্তু বিপুল সংখ্যক কার্ডের সঙ্গে আধার সংযুক্তকরণের কাজ এখনও বাকি। এই অবস্থায় ভোটের আগে নতুন করে কোনও সমস্যা আর চাইছে না রাজ্য। সেই কারণে রেশন পদ্ধতিতে আরও একবার সংস্কার করা হচ্ছে।

আরও খবর

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

সম্পাদকের পছন্দ

টাটকা খবর

©2023 newsonly24. All rights reserved.