প্রথম পাতা খবর হাতে সময় মাত্র ২৪ঘন্টা, দিল্লি যাবেন কি যাবেন না সেই সিদ্ধান্ত এখন মুখ্যসচিবের

হাতে সময় মাত্র ২৪ঘন্টা, দিল্লি যাবেন কি যাবেন না সেই সিদ্ধান্ত এখন মুখ্যসচিবের

88 views
A+A-
Reset

ডেস্ক: ইয়াস চলে গেলো, এখনও ঝড় থামেনি বঙ্গ রাজনীতিতে। মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের বদলির ইস্যুতে উত্তাল রাজ্য–রাজনীতি। আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের বদলির নির্দেশ প্রত্যাহারের আবেদন জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। হাতে সময় মাত্র ২৪ঘন্টা তার মধ্যেই দিল্লি যাবেন কি যাবেন না সেই সিদ্ধান্ত নিতে হবে মুখ্যসচিবকে। সূত্রের খবর, মুখ্যসচিব যাচ্ছেন না দিল্লি বলে। 

জানা গিয়েছে, সরকারের কাছে প্রাথমিক ভাবে আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের বদলির নির্দেশ প্রত্যাহারের আবেদন জানিয়েছেন তিনি। এখন দেখার, বাংলার মুখ্যমন্ত্রীর আর্জি মেনে কেন্দ্রীয় সরকার ওই বদলির নির্দেশ প্রত্য়াহার করে কি না। হাতে সময় ২৪ ঘণ্টা। মুখ্যসচিব যাচ্ছেন না দিল্লি বলে সূত্রের খবর। বরং ওই দিন মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে বৈঠকে থাকবেন তিনি।


এক্ষেত্রে একটি বিষয় উল্লেখ্য, কেন্দ্রের হাতে ক্ষমতা আছে আধিকারিককে তলব করার। কিন্তু এক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট আমলার ইচ্ছারও গুরুত্ব আছে। ইচ্ছের বিরুদ্ধে তাঁকে দিল্লি আনা সহজ নয়। রাজ্য আমলাকে ছাড়তে চাইছে কিনা, সেটাও গুরুত্বপূর্ণ।

আরও পড়ুন: খালি চেয়ার দেখিয়ে বলছে আমরা যাইনি, বৈঠক বিতর্ক প্রসঙ্গে বললেন মমতা


আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় যদি দিল্লি যান তাহলে তাঁর সেইদিনই অবসর। কারণ ৩১ মে তাঁর অবসরগ্রহণের দিন। সরকারি নিয়মেই। আর যে তিন মাস মেয়াদ বৃদ্ধি করা হয়েছিল সেটা ছিল মুখ্যসচিব হিসাবে। দিল্লি গেলে আগের নির্দেশিকা খারিজ হয়ে যায়। আর না গেলে আরও তিন মাস মুখ্যসচিব থাকা যায়। বাংলার স্বার্থে যেটা জরুরি।


শুক্রবার প্রধানমন্ত্রীর ঘূর্ণিঝড় বৈঠকে থাকেননি মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলে কেন্দ্রের অভিযোগ। তা নিয়ে বিতর্কের ঝড় অবশ্যই জাতীয় রাজনীতির ইস্যু হয়ে ওঠে। আর সেদিন রাতেই আসে মুখ্যসচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়ের বদলির নির্দেশ। শনিবার দুপুরে দেখা গেল ক্ষোভের বহিঃপ্রকাশ। তাহলে অবসরের দিনই কি আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়কে বদলি? এই প্রশ্ন তোলেন মুখ্যমন্ত্রী। অনুরোধ করলেন, চিঠি প্রত্যাহার করা হোক। এদিকে আলাপনকে ছাড়তে চান না মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সাংবাদিক বৈঠকে তা বুঝিয়ে দিয়েছেন। মুখ্যমন্ত্রী জানান, মুখ্যসচিবের বিরুদ্ধে রাজনৈতিক প্রতিহিংসা নিয়ে রাস্তায় নেমেছেন। প্রতিহিংসা শেষ করে চিঠি প্রত্যাহার করুন।

আরও খবর

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

সম্পাদকের পছন্দ

টাটকা খবর

©2023 newsonly24. All rights reserved.