প্রথম পাতা খবর ‘মুখ্যমন্ত্রী ঘুম থেকে উঠুন, আমাকে সাংবিধানিক ক্ষমতা প্রয়োগে বাধ্য করবেন না’, মমতাকে হুঁশিয়ারি ধনকড়ের

‘মুখ্যমন্ত্রী ঘুম থেকে উঠুন, আমাকে সাংবিধানিক ক্ষমতা প্রয়োগে বাধ্য করবেন না’, মমতাকে হুঁশিয়ারি ধনকড়ের

79 views
A+A-
Reset

ডেস্ক: রাজ্যে সরকারি মদতে রাজনৈতিক হিংসার চলছে বলে অভিযোগ তুলে সরব হলেন ধনকড়৷ ‘মুখ্যমন্ত্রী ঘুম থেকে উঠুন। আমাকে সাংবিধানিক ক্ষমতা প্রয়োগে বাধ্য করবেন না’। শনিবার নন্দীগ্রামে দাঁড়িয়ে বললেন রাজ্যপাল। মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কেও নিশানা করেছেন রাজ্যপাল৷ রাজনৈতিক হিংসা চললেও মুখ্যমন্ত্রী তা উপেক্ষা করছেন বলে অভিযোগ করেছেন রাজ্যপাল৷


এদিন ধনকর বলেন, ‘আজ লক্ষ লক্ষ মানুষ আক্রন্ত। লক্ষ লক্ষ মানুষ রাজ্য ছেড়ে অন্য রাজ্যে আশ্রয় নিয়েছেন। নিজেকে প্রশ্ন করুন, আপনি কী করেছেন? শীতলকুচিতে আপনি কোনও কিছু করতে বাকি রাখেননি। আপনি গণহত্যা বলেছেন। ঠান্ডা মাথায় খুন বলেছেন। আপনি ক্ষতিপূরণ দিয়েছেন। আপনি দ্রুত পুলিশ সুপারকে সাসপেন্ড করেছেন। আপনি কি এই লক্ষ লক্ষ মানুষের যন্ত্রণা দেখেছেন? সেই সময় মেয়েদের দেখেছেন যাদের ধর্ষণ করা হয়েছে? যাদের বাড়ির লোকের মৃত্যু হয়েছে’?


কলকাতা থেকে বিএসএফ-এর হেলিকপ্টারে নন্দীগ্রামের হরিপুরে পৌঁছন জগদীপ ধনখড়৷ সেখানে তাঁকে স্বাগত জানান নন্দীগ্রামের বিজেপি বিধায়ক এবং রাজ্যের বিরোধী দলনেতা শুভেন্দু অধিকারী৷ পূর্ব নির্ধারিত সূচি অনুযায়ী মূলত নন্দীগ্রামের এক নম্বর ব্লকের বিভিন্ন এলাকায় ঘোরেন রাজ্যপাল৷ কেন্দামারি, নন্দীগ্রাম বাজার, বঙ্কিম মোড়ের মতো বিভিন্ন এলাকায় ঘুরে সাধারণ মানুষের সঙ্গে কথা বলেন তিনি৷ নন্দীগ্রামে ভোটের পর যাঁদের বাড়ি ঘর ভাঙচুর হয়েছে, তাঁদের অভিযোগও শোনেন রাজ্যপাল৷ 


তিনি বলেন, ‘বেঁচে থাকার জন্য মানুষকে ভিক্ষে চাইতে হচ্ছে৷ আমরা কোথায় এসে পৌঁছেছি? আমি লজ্জিত৷ ‘এর পর বলেন, ‘বাড়িতে বোমা মেরে ধ্বংস করা হচ্ছে৷ পুলিশ, প্রশাসন কেউ আসছে না, আমরা কোথায় যাচ্ছি? কল্পনাও করতে পারছি না যে স্বাধীনতার পর ভারতে এমন দৃশ্য দেখতে হবে৷ এক কিলোমিটার পায়ে হেঁটে এসেছি৷ ভোট দেওয়ার জন্য মানুষকে এভাবে মাশুল দিতে হবে? মুখ্যমন্ত্রীকে অনুরোধ করছি, রাজ্যে করোনা যত বড় সমস্যা, সেরকমই নির্বাচন পরবর্তী হিংসাও বড় সমস্যা৷ মুখ্যমন্ত্রী দয়া করে নজর দিন৷


মুখ্যমন্ত্রীকে হুঁশিয়ারি দেন ধনকড়। বলেন, ‘ভারতের সংবিধানে একটা ক্ষমতা দেওয়া রয়েছে। সেই ক্ষমতা ব্যবহার করতে বাধ্য করবেন না।  ঘুম থেকে উঠুন। রাষ্ট্র দ্বারা আয়োজিত সমর্থিত এই নৃশংস হিংসাকে রুখুন’। পশ্চিমবঙ্গের এই অবস্থা দেখে আমার হৃদয় কাঁপে! হাতজোড় করে বলছি এই তাণ্ডবনৃত্য বন্ধ হওয়া দরকার৷ এখনও আপনি কিছু করেননি৷ সবকিছু উপেক্ষা করেছেন৷ সরকারি মদতপুষ্ট এই সন্ত্রাস বন্ধ করতে উদ্যোগী হন৷’

আরও খবর

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

সম্পাদকের পছন্দ

টাটকা খবর

©2023 newsonly24. All rights reserved.