প্রথম পাতা জীবনযাপন বাড়ছে পুরুষের যৌন অক্ষমতা, অবসাদ, কী করবেন?

বাড়ছে পুরুষের যৌন অক্ষমতা, অবসাদ, কী করবেন?

509 views
A+A-
Reset

ওয়েবডেস্ক : ভারতীয় পুরুষরদের ক্ষেত্রে যৌন অক্ষমতা বা ‘ইরেকটাইল ডিসফাংশন’ হালে একটা বড় সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। পরিসংখ্যান বলছে, ২০১৫ সালে সারা দেশে ৪৪৮ জন মানুষ আত্মহত্যা করেন যৌন অক্ষমতা এবং সন্তান উৎপাদনে অক্ষম বলে।

তাঁদের মধ্যে ১৮ থেকে ৩০ বছর বয়সের মধ্যে ছিলেন ৭২ জন পুরুষ। ৩০ থেকে ৪৫ বছরের মধ্যে ১০২ জন পুরুষ। এই তালিকার মধ্যে থাকা মহিলাদের ক্ষেত্রে আত্মহত্যার বড় কারণ সন্তান উৎপাদনে অক্ষমতা। আর পুরুষদের ক্ষেত্রে ‘ইরেকটাইল ডিসফাংশন’।

চিকিৎসকরা বলছেন, ১৩-১৪ বছর বয়স থেকে যে কোনও বয়সেই এই সমস্যা দেখা দিতে পারে। মানসিক এবং শারীরিক দুটি কারণেই হতে পারে এই সমস্যা। থাইরয়েড, ডায়াবিটিসের মতো অসুখ থাকলে এই সমস্যা তৈরি হয়।

উদ্বেগ বা অবসাদ তো আছেই, তা ছাড়া হঠাৎ কোনও মানসিক আঘাত পেলে বা পারিপার্শ্বিক চাপের কারণে এই সমস্যা দেখা দিতেই পারে। আমফানের মতো ঘটনা যখন ঘটল, তখন বহু পুরুষের ক্ষেত্রেই এই সমস্যা দেখা দিয়েছিল।

আরও পড়ুন : ওজন কমানোর সহজ উপায় রয়েছে হাতের কাছেই, জাস্ট ফলো করুন

এমনকি লকডাউন এবং করোনা সংক্রমণের দিনগুলোর প্রথম দিকে বহু পুরুষই পারিপার্শ্বিক চাপের কারণে যৌন উৎসাহ হারিয়ে ফেলেছিলেন। আবার বহু পুরুষের এই সমস্যার পিছনে পর্নোগ্রাফির একটা বড় ভূমিকা রয়েছে।

এই ধরনের ভিডিয়ো আসক্তি তৈরি করে দেয়। শুধু তাই নয়, একটা ‘পারফরম্যান্স প্রেশার’ও তৈরি হয়। নিজের থেকে এবং সঙ্গের মানুষটার থেকে চাহিদা অনেক বেড়ে যায়। সেই চাহিদা ছুঁতে না পারলেই, মন ক্রমশ হতাশাগ্রস্ত হয়ে যায়।

তবে সমস্যাটা শরীরের হোক অথবা মনের, চিকিৎসা আছে। চিকিৎসকরা বলছেন, সমস্যা হয় একটু বেশি বয়সীদের ক্ষেত্রে। তাঁদের অনেকের ক্ষেত্রেই মনের যৌন চাহিদার সঙ্গে শরীর তাল মেলাতে পারে না। তাঁদের সমস্যা বাদ দিলে, বাকিদের ক্ষেত্রে ততটাও কঠিন নয়, এই সমস্যা সারিয়ে তোলা।

২০ শতাংশ ক্ষেত্রে সমস্যাটা মানসিক। মনোবিদের সঙ্গে কথা বললেই, তার অনেকটা সারিয়ে ফেলা সম্ভব। এই সমস্যা সমাধানের চাবিকাঠিটা শুধু শরীরে নয়, লুকিয়ে আছে মনেও। আর সেটা শুধু সমস্যায় ভোগা মানুষটার মন না, সামগ্রিক ভাবে তাঁর চারপাশের মানুষের মনেও।

‘ইরেকটাইল ডিসফাংশন’ নিয়ে সকলের কিছু বদ্ধমূল প্রাচীনপন্থী ধারণার বদলে ফেলুন, অ্যালকোহল, ধূমপান— এগুলো থেকে দূরে থাকুন। কাজের চাপ বাড়িতে নিয়ে আসবেন না। তা হলেই মন ভালো থাকবে। সমস্যার অনেকটাই সেরে যাবে।

আরও খবর

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

সম্পাদকের পছন্দ

টাটকা খবর

©2023 newsonly24. All rights reserved.