প্রথম পাতা Uncategorized ‘আমি কথা দিচ্ছি, ওই কাণ্ডের তদন্ত করাব দোষীরা শাস্তি পাবে’, শীতলকুচির নিহতদের পরিজনদের সঙ্গে দেখা করে আশ্বাস মমতার

‘আমি কথা দিচ্ছি, ওই কাণ্ডের তদন্ত করাব দোষীরা শাস্তি পাবে’, শীতলকুচির নিহতদের পরিজনদের সঙ্গে দেখা করে আশ্বাস মমতার

81 views
A+A-
Reset

ডেস্ক: কথা রাখলেন মমতা, মাথাভাঙায় নিহতদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করলেন তৃণমূনেত্রী। ‘আজ আমার অনেকগুলো সভা রয়েছে।  তাই আপনাদের কাছে অল্পক্ষণ থাকার জন্য আমি ক্ষমা প্রার্থী’। মাথাভাঙায় নিহতদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করে বললেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।


কমিশনের নিষেধাজ্ঞা থাকায় ৭২ ঘণ্টা মাথাভাঙায় যেতে পারেননি তিনি। কিন্তু সেই সময় কাটতেই বুধবার সকালে মাথাভাঙায় হাজির তৃণমূল নেত্রী। মৃতদের পরিবারের সঙ্গে দেখা করে পূর্ণ সহযোগিতার আশ্বাস দিলেন তিনি। এদিন মমতার সঙ্গে দেখা করতে আসেন ভোটের লাইনে দুষ্কৃতীদের গুলিতে মৃত রাজবংশী আনন্দ বর্মনের পরিবারের সদস্যরাও।


মমতার সঙ্গে এসে দেখা করেন আনন্দর দাদু ও বাবা। আর সেখান থেকেই মমতা বলেন, ‘আমি কথা দিচ্ছি, আমি নিজে থেকে ওই কাণ্ডের তদন্ত করাব। দোষীরা শাস্তি পাবেই। সে তিনি যত বড় কেউ হোন না কেন। আর আনন্দ বর্মনকে কে খুন করল, তাও তদন্ত করে বের করা হবে।’


নিহতদের স্মরণসভায় মমতা বলেন, ‘নিহতদের প্রত্যেকের পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে দেখা করেছি। ছোট ছোট ছেলেরা মারা গিয়েছে। দেখলাম একজনের স্ত্রী গর্ভবতী। একজনের বাচ্চা একেবারে শিশু। আমি মনে করি এই ঘটনার বিচার হওয়ার প্রয়োজন। যারা এই ঘটনার পেছনে রয়েছে তাদের শাস্তির ব্যবস্থা আমরা করবই। ভোটটা মিটে যাক। রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে যা যা তদন্ত করা যায় তা আমরা করব’।


‘সবাইকে আবেদন, শান্তি রক্ষা করুন। মৃতদের পরিবার ন্যায্য বিচার পাবে। কেউ কোনও প্ররোচনায় পা দেবেন না। আমরা কাউকে ছেড়ে কথা বলব না। দোষী যত বড়ই কেউ হোক না কেন, বিচার তাদের হবেই।” বুলেটের বদলে ব্যালটে তার জবাব দেবে। নিহত আনন্দ বর্মণ ও আমরা এক রাজবংশী ভাই। নিহতরা সবাই রাজবংশী। কেউ হিন্দু, কেউ মুসলিম। আমাদের দলের সদস্যদের বলব নিহতদের একটা করে শহিদ বেদী তৈরি করে দিতে। এর দায়িত্ব রবিকে নিতে বলছি। নির্বাচনের পর তার করা হবে। আমি আসব উদ্বোধন করতে।

আরও পড়ুন: ২৪ ঘণ্টা তৃণমূলনেত্রীর প্রচারে নিষেধাজ্ঞা, কমিশনের সিদ্ধান্তের প্রতিবাদ, কাল ধরণায় বসছেন মমতা


এদিন তৃণমূলনেত্রী নিহতদের পরিবারকে বললেন “বলতে চাই আপনারা আমাকে নিজের ঘরের মেয়ে বলে মনে করবেন। তা সে হিন্দু হোক বা মুসলিম। আমার দিক থেকে যতটা পারব তা করব। ভোটের পর প্রথম আপনাদের কাছেই আসব। তখন যা যা করার করব। সবাইকে অনুরোধ শহিদের জন্য প্রার্থনা করবেন। তাদের পরিবারগুলো যাতে ভালো থাকে তা দেখবেন। নিহতদের প্রতি আমি আমার সমবেদনা জানাচ্ছি। দলের কর্মীদের বলছি। আনন্দ সহ নিহতদের পরিবারদের বাড়িতে পৌঁছে দিন। আবার দেখা হবে। গণতন্ত্রের জয় হোক’। 


এক নিহতের পরিজন বলেছেন, তৃণমূল নেত্রী দেখা করেছেন। সান্ত্বনা দিয়েছেন। ভরসা দিয়েছেন। নির্বাচন মিটে গেলে আমাদের সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছেন। তাঁর ওপর আমাদের আস্থা রয়েছে।

আরও খবর

মন্তব্য করুন

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.

সম্পাদকের পছন্দ

টাটকা খবর

©2023 newsonly24. All rights reserved.